logo

কিশোরগঞ্জে ত্রাণের চাল আত্মসাত করায় জেলা পরিষদ সদস্য কারাগাারে

মাসুম পাঠানঃ
কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে সরকারি চাল আত্মসাত ও কালোবাজারে বিক্রি করে দেয়ার অভিযোগে জেলা পরিষদের এক সদস্যকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
শনিবার কামরুজ্জামানকে (৩৫) বিচারিক হাকিম আদালতে হাজির করলে বিচারক  তাকে কিশোরগঞ্জ জেলা কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।
পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, শুক্রবার বিকেল ৫টার দিকে কটিয়াদী উপজেলার সহশ্রাম ধূলদিয়া ইউনিয়নের ফুলবাড়িয়া গ্রাম থেকে তাকে আটক করা হয়। কিশোরগঞ্জ জেলা
পরিষদের সদস্য কামরুজ্জামান কটিয়াদী উপজেলার সহশ্রাম ধূলদিয়া ইউনিয়ন ফুলবাড়িয়া গ্রামের প্রয়াত ইদ্রিস মিয়ার ছেলে।
পুলিশ ও সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, করোনাভাইরাসের প্রাদুুর্ভাবে কর্মহীন হয়ে পড়া ও অসহায় ৪৫০টি পরিবারের মধ্যে খাদ্য-সামগ্রী বিতরণের জন্য কিশোরগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য
কামরুজ্জামানকে পরিষদের পক্ষ থেকে ত্রাণ বরাদ্দ দেয়া হয়।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও তার প্রতিনিধি প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাকে (পিআইও) উপস্থিত রেখে প্রত্যেক সুবিধাভোগীকে ১০ কেজি চাল, ১ কেজি ডাল, ১ কেজি তেল, ২টি
সাবান ও ২টি মাস্ক বিতরণের নির্দেশনা দেয় হয়। কিন্তু জেলা পরিষদের সদস্য কামরুজ্জামান নিজে উদ্যোগী হয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার কিংবা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাকে না জানিয়ে ১০ কেজি চালের বদলে প্রতি প্যাকেটে ২-৩ কেজি করে কম দিয়ে চাল বিতরণ শুরু করে দেন।
চাল কম দেয়ার অভিযোগের ভিত্তিতে শুক্রবার বিকেলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোছা. আকতারুন নেছা এবং কটিয়াদী মডেল থানার ওসি এম এ জলিল কটিয়াদী উপজেলার সহশ্রাম ধূলদিয়া ইউনিয়নের ফুলবাড়িয়া গ্রামে গিয়ে ত্রাণের ২১৯টি প্যাকেট পান। এর মধ্যে ৩২টি প্যাকেটে চালের পরিমাণ ১০ কেজি থাকলেও বাকি ১৮৭টি প্যাকেটের প্রতিটিতে ২-৩ কেজি চাল কম পাওয়া যায়।
সরেজমিনে গিয়ে ত্রাণের চাল পরিমাণে কম দেয়ার অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত হওয়ার পর কিশোরগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য কামরুজ্জামানকে আটক করে কটিয়াদী মডেল থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।
কটিয়াদী মডেল থানার ওসি এম. এ জলিল জানান, সরকারি চাল আত্মসাত ও কালোবাজারে বিক্রি করে দেয়ার অভিযোগে কিশোরগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য কামরুজ্জামানে আটক করা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। শনিবার তাকে কোর্টে সোর্পদ করা হয়েছে।
কোর্ট ইন্সিসপেক্টার চৌধুরী মো. মিজানুজ্জামন জানান, শনিবার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আবদুর নূর কামরুজ্জামানকে জেল-হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। তাকে কিশোরগঞ্জ জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Comments are closed.







প্রধান সম্পাদক : ফজলুল হক জোয়ারদার আলমগীর, সহ-সম্পাদক : দেলোয়ার হোসেন শরীফ।
বার্তা সম্পাদক - মাসুম পাঠান, প্রধান কার্যালয়: ১৩/এ মনেশ্বর রোড, হাজারিবাগ, ঢাকা- বাংলাদেশ।
জোনাল অফিস: বাংলাদেশ কম্পিউটার এন্ড টেকনিক্যাল ইন্সটিটিউট, কটিয়াদী বাজার (অগ্রনী ব্যাংক নিচতলা), কিশোরগঞ্জ।
ফোন : ০১৭১১-১৮৯৭৬১, ০১৭১১-৩২৪৬৬০, ০১৭৩২-১৬৩১৫৭।
ই-মেইল: news@ghatanaprobaha.com, ওয়েবঃ- www.ghatanaprobaha.com
ডিজাইন: একুশে