logo

কটিয়াদীতে ট্রিপল মার্ডারের দায় স্বীকার করলো ছোট ভাই দ্বীন ইসলাম ৯ জনকে আসামী করে মামলা, ৪ জনকে জেল হাজতে প্রেরণ

কটিয়াদী (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি
কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে নিখোঁজের একদিন পর বাড়ির পাশ হতে একসঙ্গে মাটিচাপা স্বামী -স্ত্রী ও শিশু পুত্রের মরদেহ উদ্ধার করেছেন পুলিশ। এ সময় আটক করা নিহতের ছোট ভাই দ্বীন ইসলাম তিনজনকে একাই হত্যা করার কথা স্বীকার করেছেন বলে জানিয়েছেন পুলিশ।
নিহত আসাদুজ্জামানের বড় ছেলে তোফাজ্জল হোসেন বাদি হয়ে ৯ জনকে আসামী করে কটিয়াদী মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। শনিবার এ মামলায় গ্রেফতারকৃত ৪ জনকে কিশোরগঞ্জ জেল হাজতে প্রেরণ করেছেন পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছেন নিহত আসাদুজ্জামানের ছোট ভাই দ্বীন ইসলাম (৪০), বোন নাজমা বেগম (৩৫), মা কেওয়া খাতুন (৬৫) ও বোনের ছেলে আল আমিন (৩৫)।
জিজ্ঞাসাবাদের সময় দ্বীন ইসলাম পুলিশকে জানায় জমিজমা ও পারিবারিক বিরোধকে কেন্দ্র করে তিনি একাই তিনজনকে হত্যা করেছেন । বুধবার রাত একটার দিকে ঘুমন্ত অবস্থায় শাবল দিয়ে বড় ভাই আসাদ কে হত্যা করার পর ভাবী পারভীন আক্তার ও ভাতিজা লিওনকে হত্যা করে । ঘরের পাশেই একটি গর্ত খুঁড়ে প্রথমে গর্তে ভাই আসাদুজ্জামান পরে ভাবী এবং ভাতিজা কে রেখে মাটি চাপা দিয়ে রাখে। নির্মম এ হত্যাকান্ডটি তিনি একাই ঘটিয়েছেন বলে দায় স্বীকার করলেও পুলিশ অধিকতর তদন্তের স্বার্থে অন্যান্যদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ এবং তদন্ত অব্যাহত রেখেছেন।
কটিয়াদী উপজেলার বনগ্রাম ইউনিয়নের জামষাইট গ্রামের কান্দাপাড়া এলাকায় এ চাঞ্চল্যকর ও লোমহর্ষক ঘটনাটি ঘটেছে।
নিহত আসাদুজ্জামানের নিজ বাড়ি সংলগ্ন বাঁশঝাড়ের মাটি খুঁড়ে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে তিনজনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।
জানা গেছে, বুধবার রাত থেকে ওই গ্রামের আসাদুজ্জামান (৫০), তার স্ত্রী পারভীন আক্তার (৪০) ও শিশুপুত্র লিয়ন (১২) বাড়ি থেকে রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয়।
রাতেই এ নিখোঁজ দম্পতির মেজো ছেলে মোফাজ্জল এ ঘটনা কটিয়াদী মডেল থানা পুলিশকে জানায়।
অপরদিকে, এ খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার ঢাকা থেকে বাড়ি ফিরে সন্ধ্যার পর ওই বাঁশ ঝাড়ের কাছে নতুন মাটি দেখে সন্দেহ হয় আসাদুজ্জামানের বড় ছেলে তোফাজ্জলের।
আর সেখানে একটু মাটি খুঁড়তেই মা-বাবার সঙ্গে নিখোঁজ শিশু লিয়নের হাত বেরিয়ে আসে।
আর এ খবর পেয়ে কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার মোঃ মাশরুকুর রহমান খালেদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার অভিযান শুরু করে।
এ সময় মাটি খুঁড়ে একই গর্ত থেকে নিখোঁজ মা-বাবা ও শিশুসন্তানের মরদেহ উদ্বার করেন পুলিশ।
কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার মোঃ মাশরুকুর রহমান খালেদ জানান, এ ঘটনার প্রকৃতি দেখে মনে হয়েছে পূর্ব পারিবারিক বিরোধের জেরে এ ঘটনা ঘটেছে।
দ্রæততম সময়ের মধ্যে এ হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন সম্ভব হবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন পুলিশ সুপার।

কটিয়াদী মডেল থানার ওসি এম এ জলিল জানান নিহতের বড় ছেলে তোফাজ্জল হোসেন বাদী হয়ে ৯ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। এ ঘটনায় ৪ জনকে গ্রেফতার করে কিশোরগঞ্জ জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Comments are closed.







প্রধান সম্পাদক : ফজলুল হক জোয়ারদার আলমগীর, সহ-সম্পাদক : দেলোয়ার হোসেন শরীফ।
বার্তা সম্পাদক - মাসুম পাঠান, প্রধান কার্যালয়: ১৩/এ মনেশ্বর রোড, হাজারিবাগ, ঢাকা- বাংলাদেশ।
জোনাল অফিস: বাংলাদেশ কম্পিউটার এন্ড টেকনিক্যাল ইন্সটিটিউট, কটিয়াদী বাজার (অগ্রনী ব্যাংক নিচতলা), কিশোরগঞ্জ।
ফোন : ০১৭১১-১৮৯৭৬১, ০১৭১১-৩২৪৬৬০, ০১৭৩২-১৬৩১৫৭।
ই-মেইল: news@ghatanaprobaha.com, ওয়েবঃ- www.ghatanaprobaha.com
ডিজাইন: একুশে